চরভদ্রাসনে শিক্ষকের যৌন হয়রানি শিকার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী - আজকের খবর

আজকের বিশ্বের সব খবরাখবর

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Saturday, July 14, 2018

চরভদ্রাসনে শিক্ষকের যৌন হয়রানি শিকার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী

উপজেলা প্রতিনিধি,(চরভদ্রাসন) ফরিদপুর-
ফরিদপুর জেলার চরভদ্রাসন উপজেলার লোহারটেক বিশ্বাস বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে  ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।গত  বুধবার মেয়ে ও তার মা ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।
জানাযায়,  শিক্ষক মো. লুৎফর রহমান বেশ কিছু দিন ধরে ওই ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করে আসছিলেন। গত ৪ জুলাই ভোর ৬টার প্রাইভেট শেষে ওই শিক্ষক মেয়েটির শরীরে হাত দিয়ে তাকে যৌন নির্যাতন করে। এ ঘটনা সহপাঠীরা জেনে যাওয়ায় সে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় এবং বইপত্র ছিড়ে ফেলে। মেয়েটির পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি গোপন রাখে। পরে বুধবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়।
পরবর্তীতে গত বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সামছুল আলম তার কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে ডেকে শুনানি সম্পন্ন করেন।এ বিষয়ে জানতে সামছুল আলমের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া সম্ভব হয়নি।
ওই স্কুলছাত্রীর মা জানান, শিক্ষক লুৎফর রহমান স্কুল চলাকালীন ও প্রাইভেট পড়ানোর সময় একাধিক দিন তার মেয়ের ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছেন। ওই শিক্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে সরাররি অভিযোগ করেছেন।তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার শুনানির দিন এলাকার প্রায় অর্ধশত মাতুব্বর ও নেতাকর্মী নিয়ে ওই শিক্ষক জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে হাজিরা দিয়েছেন। অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত তার ওপর চাপ সৃষ্টি করছেন। এমনকি নির্যাতিত ছাত্রীর চাচা মাতুব্বর তৈয়বুর রহমান মীরকেও প্রধান শিক্ষক তার দলে নিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন।
চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুন নাহার বলেন, অভিযোগের তদন্ত করছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিক্ষকের সর্বোচ্চ সাজা হবে।
এ বিষয়ে শিক্ষক লুৎফর রহমান বলেন,আমার স্কুলে একসাথে অনেক শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা করে।এদের মধ্যে কোনো ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন করা সম্ভব নয়। স্থানীয় একটি ব্যাক্তিবর্গ ষড়যন্ত্র করে আমার ক্ষতি করার জন্য লেগেছে এবং তাড়াই হয়ত ঐ ছাত্রীকে ঢাল হিসেবে ব্যাবহার করছে।
এদিকে ভুক্তভোগির এলাকাবাসী ও সহকর্মীরা এর তীব্র নিন্দা ও বিচারের দাবী জানান।

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages